টেকনাফ প্রতিনিধি::
মিয়ানমার সেনাবাহিনীর নির্যাতনে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা শিশুদের হাম ও পোলিও টিকা দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে টিকাদান কর্মসূচি শুরু হবে।
স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উখিয়া-টেকনাফ ও বান্দরবনের সীমান্তবর্তী রোহিঙ্গা আশ্রিত এলাকাগুলো পরিদর্শন করে কর্মকর্তাদের সাথে জরুরী সভা করেছেন। এসব এলাকায় প্রায় ৩ লাখ রোহিঙ্গা আশ্রয় নিয়েছে। এদের মধ্যে আড়াই শতাংশ হারে এক বছরের কম বয়সী শিশু রয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। বুধবার রোহিঙ্গা আশ্রিত এলাকায় মাইকিং করা হচ্ছে। যাতে এক বছরের কম বয়সী সকল শিশুকে টিকা প্রদানের জন্য নিকটস্থ ক্যাম্পে নিয়ে আসে। এ লক্ষ্যে ৪৪টি ক্যাম্প স্থাপন করা হয়েছে।
জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা জানান, এই কর্মসূচি পালনের জন্য বিপুল সংখ্যক মাঠ পর্যায়ের স্বাস্থ্য কর্মীর প্রয়োজন হবে। এজন্য দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে স্বাস্থ্যকর্মীদের নিয়ে আসা হচ্ছে।
টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা: এনামুল হক বলেন, ‘যাতে রোহিঙ্গা শিশুরা অন্য কোথাও ছড়িয়ে পড়তে না পারে সে ব্যাপারে প্রশাসন সতর্ক রয়েছে। এসব শিশু পূর্বে কোন টিকা দেয়নি। তাই যারা আশ্রয় নিয়েছে তাদের মধ্যে সকল শিশুকে টীকা দেয়ার জন্য উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।
তিনি জানান, আপাতত এক বছরের কম বয়সী শিশুদের টিকা দেয়া হবে। পরবর্তীতে সকল শিশুদের যেসব টিকা দেয়া হয় সবগুলো টিকা নিয়ম অনুসারে দেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*