টেকনাফে নৌকা ডুবিতে আরো ১০ রোহিঙ্গার লাশ উদ্ধার

টেকনাফ প্রতিনিধি::
টেকনাফের নাফ নদীতে রোহিঙ্গা বোঝাই নৌকা ডুবতে আরো ১০ রোহিঙ্গার লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বুধবার সকালে টেকনাফের নাফ নদীর নাজির পাড়া, নয়াপাড়া ও শাহপরীর দ্বীপ এলাকা থেকে লাশগুলো উদ্ধার করা হয়।
এই সময় তাদের কাঝ থেকে ৮টি স্বর্ণের হাতের চুরি, ২টি ক্লিপ, ২টি চেইন, ১টি হাতের ব্যাচলাইট, ৬টি কানেরদুল, ৩টি আনটি, ১০টি লকেটফুল ও মিয়ানমারের ১০হাজার নোট ১৪টি, ৫হাজার নোট ১২টি, ১হাজারে ২টি, মোট সোনার পরিমান ৯ভরি ১ আনা, টাকা পরিমান ২লক্ষ ২হাজার টাকা পাওয়া গেছে,
টেকনাফ থানার ওসি মাইন উদ্দিন খান জানান, স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে পুলিশ লাশগুলো উদ্ধার করেছে। নৌকা ডুবিতে এসব রোহিঙ্গা মারা গেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।
নৌকা ডুবির খবর পেয়ে সাবরাং মর্গপাড়ায় ছুটে যায় নিখোঁজ দুই রোহিঙ্গা যুবককের মামা মংডু পেরাংপুরু এলাকার মোঃ ওমর। সে জানায়, গত সোমবার রাতে মিয়ানমারের মংডু মংনি পাড়া ঘাটে বাংলাদেশ থেকে একটি নৌকা গিয়ে তাদেরকে আনতে যায়। এতে আমার দুই ভাগিনা মংডু হারি পাড়া এলাকার মকবুল আহমদের ছেলে মোঃ আয়াজ ও মোঃ খালেদ ও একই এলাকার নজু মিয়ার ছেলে নুর কালাম ঐ নৌকাতে ছিল। তবে রাত পেরিয়ে সকালে তাদের লাশ পাওয়া গেছে।
উল্লেখ্য, ২৪ আগস্ট মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সহিংসতা ছড়িয়ে পড়ার পর থেকে রোহিঙ্গারা বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করছে। স্থল ও জলসীমান্ত পথে হাজার হাজার রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ অব্যাহত রয়েছে। টেকনাফ সীমান্তের অপর দিকে মিয়ানমার এলাকা থেকে নৌকায় পালিয়ে আসার সময় নাফ নদীতে একাধিক নৌকাডুবির ঘটনাও ঘটেছে। এতে এখন পর্যন্ত শতাধিক লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এর মধ্যে নারী ও শিশুর সংখ্যাই বেশি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*