খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে মহানগর দর্জি শ্রমিক দলের বিক্ষোভ সমাবেশ

প্রেস বিজ্ঞপ্তি::
গত ১৪ মে, বিকাল ৩ ঘটিকায় দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়অকে নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে চট্টগ্রাম মহানগর দর্জি শ্রমিক দলের বিক্ষোভ সমাবেশে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেন বলেন বেগম খালেদা জিয়া মানেই গণতন্ত্র, গণতন্ত্র মানেই বেগম খালেদা জিয়া। তিনি বাংলাদেশের গণতন্ত্রের মূর্ত প্রতীক। গণতন্ত্রের এই নেত্রীকে কারাবন্দি করার মাধ্যমে আওয়ামীলীগ গণতন্ত্রকেই বন্দি করেছে। এদেশের জনগণ আওয়ামীলীগের এই দুরভিসন্ধিমূলক আচরণের জবাব আগামী নির্বাচনে ব্যালটের মাধ্যমেই দিবে। দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া বাংলাদেশের অবিসংবাদিত নেত্রী। তাঁকে গ্রেপ্তার করে এ অবৈধ সরকার নিজেদের পতনকে আরও ত্বরান্বিত করেছে। বেগম খালেদা জিয়া শুধু বিএনপির নেত্রী নন, তিনি বাংলাদেশের ১৬ কোটি মানুষের নেত্রী। বেগম খালেদা জিয়া বাংলাদেশের নিপীড়িত মানুষের নেত্রী, অধিকার বঞ্চিতদের আশার আলো, এদেশের আপামর জনসাধারণের আস্থা ও ভরসার প্রতীক। তিনি অন্যায়ের কাছে কখনো মাথা নত করেন নি এবং ভবিষ্যতেও করবেন না। একটি ভূয়া ও কাল্পনিক মামলায় বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেত্রীকে কারাবন্দী করে আওয়ামীলীগ সবচেয়ে বড় ভূল করেছে। কারণ এদেশের মানুষ তাদের চরিত্র সম্পর্কে ভাল করেই অবগত আছেন। জনগণ আজ এ বাকশালী সরকারের বিরুদ্ধে রাস্তায় নামতে শুরু করেছে। বর্তমান স্বৈরাচার সরকারের লুটনীতির কারণে দেশে উৎপাদনমুখী উন্নয়ন স্থবির। ফলে নতুন কোন কলকারখানা স্থাপন তো দূরের কথা লাভজনক চালু অনেক কারখানাও বন্ধ হয়ে গেছে। ফলে হাজার হাজার শ্রমিক আজ কর্মের অভাবে মানবেতর দিনাতিপাত করছেন। দেশের সত্যিকারের উন্নয়নের লক্ষে গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠা অপরিহার্য। বর্তমান সরকার গণতন্ত্রের নেত্রী দেশমাতা বেগম খালেদা জিয়াকে কারারুদ্ধ রেখে দেশে স্বৈরশাসন অব্যাহত রাখতে চায়। শ্রমিক-জনতার ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের মাধ্যমেই খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা হবে।
সমাবেশে প্রধান বক্তার বক্তব্যে কেন্দ্রীয় বিএনপির শ্রম বিষয়ক সম্পাদক এ.এম নাজিম উদ্দিন বলেন সভ্যতা বিনির্মাণের পাশাপাশি অসভ্যতা ও বর্বরতা রুখতে শ্রমিক সমাজ কখনই কোন স্বৈরাচারের রক্তচক্ষুকে ভয় করেনি। দেশ ও জাতির ক্রান্তিলগ্নে শ্রমিকরা রাজপথে সবসময় অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছে।
সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে কেন্দ্রীয় বিএনপির সাবেক সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ও মহানগর বিএনপির বর্তমান সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম বক্কর বলেন খালেদা মুক্ত প্রহসনের নির্বাচনের মাধ্যমে আওয়ামী লীগ আবারও রাষ্ট্র ক্ষমতা দখল করতে চায়। ৫ই জানুয়ারীর মতো ভোটার বিহীন নির্বাচন এদেশের মাটিতে আর হবে না এবং হতে দেওয়া হবে না। কঠোর গণ আন্দোলনের মাধ্যমে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে নিরপেক্ষ নির্বাচনের দাবি আদায়পূর্বক জনগণের ভোটাধিকার আবারও পুনঃপ্রতিষ্ঠা করা হবে।
মহানগর দর্জি শ্রমিকদলের সভাপতি আবুল হাশেম’র সভাপতিত্বে ও যুবদলের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ হারুনুর রশিদ এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত উক্ত সমাবেশে আমন্ত্রিত অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন মহানগর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক আব্দুল মান্নান, গাজী মোহাম্মদ সিরাজ উল্লাহ, সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুল ইসলাম, বিভাগীয় শ্রমিক দলের সাধারণ সম্পাদক নুরুল্লাহ বাহার, মহানগর বিএনপির ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক মাঈনুউদ্দিন মুহাম্মদ শহিদ, মহানগর শ্রমিক দলের সভাপতি আবু তাহের, কোতোয়ালী থানা বিএনপির সভাপতি মঞ্জুর রহমান চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব জাকির হোসেন।
অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন দেওয়ান বাজার ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি খন্দকার নুরুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক সাব্বির আহমেদ, জামাল খান ওয়ার্ড বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক তৌহিদুস সালাম নিশাদ, মহানগর ছাত্রদলের সহ-সভাপতি জসিম উদ্দীন চৌধুরী, জিয়াউর রহমান জিয়া, মহানগর শ্রমিক দলের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিক আহমদ, জিলা নির্মাণ শ্রমিকদলের সভাপতি আব্দুল মন্নান, বাকলিয়া থানা শ্রমিকদল সভাপতি আবু বক্কর সিদ্দীক, দেওয়ান বাজার ওয়ার্ড বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক মোহাম্মদ রফিক, গাজী সাইফুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক মনছুর আলম, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক জামাল উদ্দিন, মহানগর যুবদল নেতা মোহাম্মদ আলাউদ্দিন, দেওয়ান বাজার ওয়ার্ড বিএনপির প্রচার সম্পাদক হাজী রাসেল, সহ-প্রচার সম্পাদক তোফাজ্জল হোসেন মানিক, শ্রমিক দলের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শহিদ, কোতোয়ালী থানা যুবদল নেতা মোহাম্মদ সালাউদ্দিন, শমসের আলী, আরশেদ হোসেন আশু, মোঃ বেলাল, মহানগর তাঁতিদল নেতা জাহাঙ্গীর আলম, মোহাম্মদ মানিক, সাইফুল ইসলাম স্বপন, মোঃ নুরু, মহিউদ্দিন মানিক, আব্দুল মালেক, জুয়েল, আরিফ প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*