সিডিএ‌’র অনুমোদন ছাড়া বাড়ী নির্মাণ, নেপথ্যে উপ সহকারী প্রকৌশলী শহিদ

স্টাফ রিপোর্টার::
নগরীতে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (সিডিএ) অনুমোদন ছাড়া গৃহ নির্মাণ করা আইনত নিষেধ থাকলেও তা মানা হচ্ছে না । অনুমোদন ছাড়া বাড়ী নির্মাণ করা হচ্ছে অহরহ। মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে এই সবের নেপথ্যে কাজ করছে সিডিএতে কর্মরত উপ সহকারী প্রকৌশলী মোহাম্মদ শহিদ।
অনুসন্ধানে জানা যায়, পশ্চিম ষোলশহর, হামজারবাগ এলাকায় সংগীত সিনেমা রোডে মোহাম্মদ আদনানের মালিকানাধীন প্লট নং-১০৯৭ বিএস দাগ নং-৫১৮৭ মাত্র দেড় শতক জায়গার উপর ৫ তলা ভবন নির্মাণের জন্য অনুমোদন নিতে সিডিএ’র বরাবরে আবেদন করে ২০১৮ সালের ৭ অক্টোবর। প্রকৌশলী শহিদের অনৈতিক কারিশমায় ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর তিনতলা ভবনের কাজ সম্পন্ন হয়ে যায়। এটিকে এলাকার বাসিন্দারা ভবনের মালিক আদনান ও প্রকৌশলী শহিদকে জাদুকরি শক্তির অধিকারী আখ্যা দিয়ে বলেন, যেখানে সিডিএ’র অনাপত্তি পত্র ও নকশা অনুমোদন নিতে ৫-৬ মাস সময় লাগে সেখানে মাত্র দুই মাসের মধ্যে ভবন নির্মাণ করা অভাবনীয়।
এ ব্যাপারে গত ১ ডিসেম্বর দুপুর ১২টায় মোহাম্মদ আদনানের মুঠোফোনে কল করে জানতে চাইলে তিনি ভবন নির্মাণের কথা স্বীকার করে বলেন, আমি অসুস্থ আপনার সাথে পরে কথা বলব বলে ফোন কেটে দেন। একইদিন সাড়ে ১২ টার সময় ০১৮১২-৩৭৪২৬২ নাম্বার হতে এই প্রতিনিধির ব্যবহৃত ০১৭১২-০৫০০১৪ নাম্বারে একটি কল আসে। কল রিসিভ করলে তিনি সিডিএ’র উপ সহকারী ইঞ্জিনিয়ার শহিদ পরিচয় দিয়ে বলেন, আমার ক্লাইন্ড আদনানকে ফোন করেছেন কেন? এই ভবন নির্মাণ করার জন্য আমি অনুমতি দিয়েছি। পারলে আমার বিরুদ্ধে কিছু করেন। শহিদের খুঁটির জোর কোথায় তা ভাববার বিষয়। এদিকে সংশ্লিষ্ট ইন্সপেক্টর শাহাদাতের সাথে কথা বলতে চাইলে তিনি তার নিকট আত্মীয় মারা যাওয়ার কারণে ছুটিতে আছেন, পরে কথা বলবেন বলে ফোন কেটে দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*