কক্সবাজারে হোটেল ও কটেজে চলছে অসামাজিক কার্যকলাপ, দেখার কেউ নেই


কক্সবাজার প্রতিনিধি::
কক্সবাজার শহর ও হোটেল মোটেল জোনের অর্ধশতাধিক গেষ্ট হাউজ, কটেজ-আবাসিক হোটেল অসামাজিক কার্যকলাপ ও অপরাধীদের স্বর্গরাজ্যে পরিণত হয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে অসাধু হোটেল মালিকরা দেদারসে পতিতা ও ইয়াবা ব্যবসা চালিয়ে এলেও আইন সৃঙ্খকলা বাহিনী রহস্যজনক ভাবে নীরবতা পালন করছে বলে অভিযোগ উঠেছে।
অনুসন্ধানে জানা যায়, পর্যটকদের উপস্থিতি বাড়ার সাথে সাথে কলাতলীর আবাসিক সাইম কটেজে দিনের বেলায় প্রকাশ্যে নারী নিয়ে পতিতা ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। রাতের বেলায় এ কটেজ যেন একটি মিনি পতিতালয়। চলে প্রকাশ্যে পতিতা ব্যবসা।
রোহিঙ্গা ইস্যূতে কক্সবাজারের বিভিন্ন দেশী-বিদেশী এনজিওদের আগমনে এ ব্যবসা আরও চাঙ্গা হয়ে উঠেছে। বিভিন্ন্ স্থানে স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসায় পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের যাতায়তও চোখে পড়ার মতো। এর ফলে হুমকির মুখে পড়েছে কক্সবাজারের সামাজিক পরিবেশ।
এ ব্যপারে বিভিন্ন সাংবাদিক ও প্রশাসন এর নজরদারিতে এলাকাবাসীর বিভিন্ন অভিযোগের ভিত্তিতে কয়েকমাস আগে অভিযান চালিয়ে পতিতা ও দালালদের আটক করলেও কিছুতেই থামছে না এই পতিতা ও ইয়াবা ব্যবসা। কটেজের মালিক, ম্যানেজার ও বয় ছেলেদের মদদেই চলছে এ ব্যবসা।
সাংবাদিকতো দূরের কথা স্থানীয় প্রশাসনকেও পরোয়া করেনা সাইম কটেজের মালিক ও ম্যানেজার আবুল কালাম। প্রতিবাদে সাইম কটেজ কর্তৃপক্ষ বলেন আমরা উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের মাসোয়ারা দিয়ে কটেজ ব্যবসা চালাই।
এলাকাবাসী জানতে চাই কলাতলীতে আবাসিক সাইম কটেজ নামে পতিতালয় মালিকের খুটির জোড় কোথায় ? সেই সাথে স্থানীয় প্রশাসনের সু-দৃষ্টি ও গোয়েন্দা বিভাগ, র‌্যাবসহ ভ্রাম্যমান আদলতের হস্তক্ষেপ কামনা করেন। আবাসিক সাইম কটেজ বন্ধের জোর দাবী জানান সচেতন মহল ও এলাকাবাসী।
এব্যাপারে কক্সবাজার সদর মডেল থানার ওসি ফরিদ উদ্দিন খন্দকার বলেন,শহরে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে প্রতিদিন সাড়াশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*