মহেশখালী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীর জয়লাভ

মহেশখালী প্রতিনিধি :: ৩য় দাপে ৫ম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মহেশখালী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মহেশখালী উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি, বড় মহেশখালী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক সফল চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শরীফ বাদশার জয়লাভ করেছে।
মহেশখালী উপজেলায় পরিষদ নির্বাচনে প্রশাসনের পক্ষ থেকে ভোট কেন্দ্রগুলোতে কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করায় কোনো ধরনের বিশৃঙ্খলা ছাড়াই উৎসব মুখর পরিবেশে রবিবার (২৪ মার্চ) শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে।
সকাল ৮.০০ টা থেকে বিকাল ৪.০০টা পর্যন্ত উপজেলার ৭৪ টি ভোট কেন্দ্রে ২ লক্ষ ১১ হাজার ৬ শত ৫৪ জন ভোটার তাদের পছন্দনীয় প্রার্থীকে তাদের মূল্যবান ভোট প্রদান করে।
সকাল থেকে ভোট কেন্দ্রেগুলিতে ভোটারের উপস্থিতি কম থাকলেও বেলা বাড়ার সাথে সাথে ভোটারদের উপস্থিতি বাড়তে থাকে। নারী ভোটারদের উপস্থিতি চোখে পড়ার মত। এবারের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আলহাজ্ব শরীফ বাদশা (আনারস ) প্রতিক নিয়ে ৩১ হাজার ২ শত ৩২ ভোট পেয়ে বেসরকারী ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।
তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি,আওয়ামী লীগের মনোনিত প্রার্থী বর্তমান উপজেলায় পরিষদ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ হোছাইন ইব্রাহীম (নৌকা) প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ২৭ হাজার ০৯ শত ৬৯ ভোট।
ভাইস চেয়ারম্যান (পুরুষ) পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান মৌলানা জহির উদ্দিন (বৈদ্যুতিক বাল্ব) প্রতীক নিয়ে ৩২ হাজার ৬ শত ২৯ ভোট পেয়ে বেসরকারী ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।
তাঁর নিকটত প্রতিদ্বন্ধি আওয়ামীলীগ সমর্থিত প্রার্থী শাহ নেওয়াজ কামাল (চশমা প্রতীক) নিয়ে পেয়েছেন ১৩ হাজার ২ শত ৫৬ ভোট।
ভাইস চেয়ারম্যান (মহিলা) পদে আওয়ামী লীগের সর্মথিত প্রার্থী মিনোয়ারা ছৈয়দ (পদ্মাফুল) প্রতীক নিয়ে ৩৭ হাজার ৪ শত ৪৭ ভোট পেয়ে বেসরকারী ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।
তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী ছিলেন, আওয়ামীলীগ সমর্থিত আর এক প্রার্থী মনোয়ারা বেগম (কলস) প্রতীক। নিয়ে পেয়েছেন ৩৫ হাজার ৫ শত ২ ভোট।
সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও মহেশখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: জামিরুল ইসলাম বলেন, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট নেওয়া হয়েছে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহন করায় ভোট চলাকালীন সময়ে কোনো ধরনের বিশৃঙ্খলা ঘটনা ঘটেনি।
ভোট কেন্দ্রগুলোতে নারী ভোটারদের উপস্থিত ছিল লক্ষ্যণীয়। সকাল ১০টার দিকে উপজেলার পৌর এলাকার বামির্জ পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্র, চরপাড়া ভোট কেন্দ্র, কালারমারছড়ার চিকনি পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্র, শাপলাপুর ষাইটমারা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্র, হোয়ানক বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্র, বড় মহেশখালী ফকিরাকাটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্র, কুতুবজোম ঘটিবাংগা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্র, ছোট মহেশখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রে পরিদর্শনকালে দেখা যায়,ভোটকেন্দ্রগুলিতে নারী ভোটাদের উপস্থিতি বেশি ছিল। নারী ভোটাররা দীর্ঘলাইনে দাঁড়িয়ে ভোট দিচ্ছেন। বড় রাখাইন পাড়া বার্মিজ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রে এক প্রার্থীর মহিলা এজেন্ট জানান, সংখ্যালঘু ভোটাররা এবার নির্ভয়ে ভোট দিচ্ছেন। রাখাইন মহিলা ও তরুণী ভোটার থেকে শুরু করে বয়োবৃদ্ধারা পর্যন্ত লাইন ধরে ভোট দিচ্ছেন। দুর্গম ভোট কেন্দ্র ধলঘাটা ইউনিয়নের সাপমারর ডেইল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রে নারী ভোটাররা সকাল থেকেই দীর্ঘলাইনে ছিলেন বলেন জানিয়েছেন তছলিমা আক্তার। বেশ কয়েকজন ভোটার জানান, দলীয় বিবেচনা নয়, সৎ ও যোগ্য প্রার্থীদেরই ভোট দেয়ার লক্ষ্যে ভোট কেন্দ্রে এসেছেন। এবারের নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ০৪ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ০৬ জন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ২ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*