সভাপতি পদত্যাগ না করা পর্যন্ত চকরিয়াতে নিসচা’র কোনো কর্মকান্ড করতে দেয়া হবে না

চকরিয়া উপকূল প্রতিনিধি :: চকরিয়া উপজেলা অযোগ্য সভাপতি সোহেল মাহমুদ পদত্যাগ না করা পর্যন্ত চকরিয়াতে নিসচা’র কোনো কর্মকান্ড করতে দেয়া হবে না বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন নিসচা চকরিয়া উপজেলা শাখার সংখ্যাগরিষ্ঠ সদস্য ও কার্যকরী পরিষদের সদস্যরা। বেশ কয়েকমাস ধরে একের পর এক তার বিরুদ্ধে অভিযোগ করে আসছে নিসচা চকরিয়া উপজেলার কার্যকরি পরিষদ ও সাধারণ সদস্যরা। সংখ্যাগরিষ্ঠ সদস্যদের অভিযোগ বর্তমান সভাপতি একজন অযোগ্য ও অপদার্থ লোক। তাকে দিয়ে নিসচার কোনো কর্মমান্ড সঠিকভাবে হচ্ছে না বলে কেন্দ্রে কয়েকবার অভিযোগ করা হয়েছে।
এদিকে গত ১৫ মে সংখ্যাগরিষ্ঠ সদস্যদের নিয়ে নিসচা চকরিয়া উপজেলার কার্যকরি পরিষদের সদস্যরা এক জরুরি সভার আহ্বান করেছিল। উক্ত সভায় সর্বসম্মতিক্রমে বর্তমান সভাপতি সোহেল মাহমুদের অপসারণসহ তার প্রতি অনাস্থা প্রকাশ করে কেন্দ্রে জানানো হয়েছে। এছাড়াও কক্সবাজার জেলা শাখার বর্তমান সভাপতি সাংবাদিক কিশোরকে বিষয়টি অবহিত করা হয়েছে।
বৈঠকে বর্তমান সভাপতি সোহেল মাহমুদের বেশকয়েকটি অভিযোগ উত্থাপন করা হয়। অভিযোগগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য
১। সদস্যদের মাসিক/এককালিন চাঁদা আত্মসাৎ।
২। কেন্দ্র থেকে পাঠানো বিভিন্ন যন্ত্রপাতি নিজের বাড়িতে জমানো।
৩। নারী কেলেংকারীর সাথে সরাসরি জড়িত।
৪। মাদক সেবনের সাথে সরাসরি জড়িত।
৫। গোপনীয়ভাবে সরকারি-বেসরকারী সুযোগ সুবিধা গ্রহণ।
৬। সংগঠনের নাম ব্যবহার করে বিভিন্ন জনের কাছ থেকে চাঁদা আদায়।
৭। নিসচার সদস্য করানোর নামে সদস্যদের কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা গ্রহণ।
৮। বিভিন্ন জনপ্রতিনিধিদের কাছ থেকে নেয়া সৌজন্য সামগ্রী নিজের আত্মীয়-স্বজনের কাছে বিতরণ।
৯। সৌদি সরকার কর্তৃক প্রেরিত উপজেলা প্রশাসনের কাছ থেকে নিসচার সদস্যদের জন্য বরাদ্ধ ৩৩ কেজি দুম্বার গোস্ত সভাপতি নিজেই গ্রহণ করে নিজেই আত্মসাৎ করেছে।
১০। সদস্যদের আইডি কার্ড সংক্রান্ত প্রতিজনের কাছ থেকে ৫০০ টাকা নিয়ে তাদেরকে কার্ড না দিয়ে সভাপতি নিজেই ঐ টাকা আত্মসাৎ করেছে।
১১। কোনো বৈঠক না ডেকে সভাপতি নিজেই একনায়ক তন্ত্র প্রতিষ্ঠার চেষ্টা।
১২। নিসচা ডুলহাজারা সভাপতি গিয়াস উদ্দীন গাজীকে স্বাক্ষী রেখে এক লোক থেকে ২,৯০,০০০ টাকা গ্রহণ করে এখন আত্মগোপনে (চেকসহ বিবিধ ডকুমেন্ট আছে)।
১৩। চকরিয়া নিরাপদ সমিতি থেকে বহু টাকা আত্মসাৎ (সমিতির বইসহ প্রমাণ আছে)।
১৪। নিসচা চকরিয়া উপজেলার সেক্রেটারীকে বিভিন্ন কাজে ব্যবহার করে যে সম্মানটুক সেক্রেটারী পাওয়ার কথা সেই ক্ষেত্রে সেক্রেটারীকে বাদ দিয়ে স্বৈরচারী নীতি প্রতিষ্ঠার চেষ্টা।
১৫। সভাপতি-সেক্রেটারী যৌথভাবে সম্মাননা ক্রেস্ট গ্রহণ করার সময় কিছু কিছু ক্ষেত্রে সেক্রেটারীকে বাদ দিয়ে সভাপতি নিজের সুবিধা ভোগ করে। পরে সম্মাননার ছবি পাবলিশ করার সময় সেক্রেটারীর ছবি এডিট করে কেটে দিয়ে সভাপতির নিজের ছবি বিভিন্ন মিডিয়াতে ভাইরাল করেন। উল্লেখ্য যে, কেন্দ্র থেকে যে সম্মাননা দেয়া হয়েছে সেটি দেয়ার বিশেষ কারণ হলো চকরিয়া দূর্ঘটনা অনুসন্ধান বিষয়ক সম্পাদকের ধারাবাহিক প্রতিবেদ প্রকাশ করার কারণে। এই সম্মাননা দেয়ার সময় চেয়ারম্যান ইলিয়াছ কাঞ্চন দূর্ঘটনার সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশকারী সাংবাদিক এম, রিদুয়ানুল হককে বিশেষভাবে ধন্যবাদ জানান। যা সভাপতির মুখে স্বীকার করেছে।
১৬। বিভিন্ন সময় সদস্যদের কাছ থেকে টাকা ধার নিয়ে সেই টাকা ফেরত না দেয়া।
এছাড়াও আরো বেশকিছু অভিযোগ ধারাবাহিকভাবে উল্লেখ করা হয়। যা প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।
জরুরি সভায় কার্যকরি পরিষদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- নিরাপদ সড়ক চাই চকরিয়া উপজেলা শাখার সহ-সভাপতি বেলায়েত হোসাইন পিয়ারু, সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুর রশিদ, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক সাংবাদিক এম, জুনাইদ উদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. ফারুখ রানা, দূর্ঘটনা অনুসন্ধান বিষয়ক সম্পাদক সাংবাদিক এম, রিদুয়ানুল হক, কার্যকরি সদস্য মো, ইশফাতুল হোসাইন, বেলাল উদ্দিন রুবেল, মো, রায়হানুল ইসলাম, মো. মুফিজুর রহমান, আমান উল্লাহ নোমান প্রমূখ। এছাড়াও অনুপস্থিত সংখ্যাগরিষ্ঠ সদস্যরা অনাস্থা প্রকাশের আবেদনে স্বাক্ষর করে বর্তমান সভাপতি সোহেল মাহমুদেও অপসারণ দাবি করেন। ঐ স্বাক্ষরযুক্ত আবেদনটি প্রতিবেদনে সংযুক্ত করা হবে।
সভায় আরো বক্তব্য রাখেন- কার্যকরী পরিষদ সদস্য মো, ইশফাতুল হোসাইন, বেলাল উদ্দিন রুবেল, মো, রায়হানুল ইসলাম, মো, মুফিজুর রহমান, আমান উল্লাহ নোমান।
এদিকে উপরোক্ত কার্যকরি পরিষদ সদস্যরা আজ ২০ মে পুনরায় জরুরি সভার আয়োজন করেন। সভায় বর্তমান সভাপতির বিরুদ্ধে অভিযোগ আকারে যে খচড়া প্রতিবেদন তৈরি করা হয় তা পর্যালোচনা করে চূড়ান্ত করা হয় এবং অযোগ্য বর্তমান সভাপতি পদত্যাগ না করা পর্যন্ত চকরিয়াতে নিসচার কোনো কার্যকলাপ করতে দেয়া হবে না বলে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন। উপস্থিত কার্যকরি পরিষদ সদস্যরা চকরিয়া উপজেলা প্রশাসন, পৌর প্রশাসন ও আইন প্রয়োগকারী সংস্থার দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন- নিসচা চকরিয়া উপজেলা শাখা পুনরায় গঠিত না হওয়া পর্যন্ত বর্তমান সভাপতিকে কোনো কার্যকলাপে অংশগ্রহণের সুযোগ না দেয়ার অনুরোধ করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*