টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ২, সাড়ে ৬ লাখ ইয়াবা উদ্ধার

কক্সবাজার প্রতিনিধি :: কক্সবাজারের টেকনাফে বিজিবির সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই ইয়াবা কারবারী নিহত হয়েছেন। এসময় ঘটনাস্থল থেকে এক লাখ পিস ইয়াবা জব্দ করা হয়। তারও আগে অভিযানে আরও ৫ লাখ ৪০ পিস ইয়াবা জব্দ করা হয়।
শনিবার (১ জুন) ভোরে টেকনাফ পৌর এলাকার কাইয়ুকখালী খালের মুখে এ ‘বন্দুকযুদ্ধ’ হয়। আর ৫ লাখ ৪০ পিস ইয়াবা পাওয়া যায় হ্নীলা এলাকার ওমর খাল এলাকায়।
‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত দু’জন হলেন টেকনাফের হ্নীলা জাদীমুরা এলাকার সোলতান আহম্মদের ছেলে আব্দুর গফুর (৪০) ও কেরুনতলীর মো. শরীফের ছেলে মো. সাদেক (২৩)।
টেকনাফ ২ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল ফয়সাল হাসান খান বাংলানিউজকে জানান, মিয়ানমার থেকে টেকনাফ পৌর এলাকার কাইয়ুকখালী খালের মুখ দিয়ে ইয়াবার বড় একটি চালান ঢুকবে- গোপন সূত্রে এমন খবর পেয়ে ভোর ৩টার দিকে বিজিবির একটি দল সেখানে অভিযান চালায়। এসময় বিজিবি সদস্যদের উপস্থিতি টের পেয়েই ইয়াবা চোরাকারবারীরা অতর্কিত গুলি চালাতে শুরু করে। আত্মরক্ষার্থে বিজিবিও পাল্টা গুলি চালায়। এক পর্যায়ে চোরাকারবারীরা পিছু হটলে ঘটনাস্থল থেকে দুই ইয়াবা কারবারীর মরদেহ এবং এক লাখ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।
ফয়সাল হাসান খান বলেন, নিহত দুই মাদক কারবারীর মরদেহ ময়না-তদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় টেকনাফ থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।
এর আগে শুক্রবার (৩১ মে) দিনগত রাত সাড়ে ৯টার দিকে হ্নীলা ইউনিয়নের দমদমিয়া ওমর খাল এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৫ লাখ ৪০ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট জব্দ করা হয়।
এ বিষয়ে বিজিবি জানায়, মিয়ানমার থেকে ইয়াবার চালান বাংলাদেশে পাচারের খবর পেয়ে বাহিনীর দু’টি বিশেষ টহল টিম নাফ নদীতে অভিযানে যায়। তখন ৫-৭ জনের চোরাকারবারী দল একটি হস্তচালিত নৌকায় করে হ্নীলা ওমর খাল পয়েন্ট দিয়ে আসছিল। সে মুহূর্তে বিজিবি তাদের চ্যালেঞ্জ করলে পাচারকারীরা নৌকাটি ডুবিয়ে দিয়ে কেওড়া বনে পালিয়ে যায়। পরে ওই নৌকায় তল্লাশি চালিয়ে ৫ লাখ ৪০ হাজার পিস ইয়াবা জব্দ করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*