সিভিল সার্জনের ঝটিকা সফর, চিকিৎসক শূন্য বহির্বিভাগ

সীতাকুণ্ড সংবাদদাতা::
সীতাকুণ্ড উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বহির্বিভাগে সেবা নিতে অপেক্ষা করছিলেন রোগীরা। কিন্তু সেবা চালুর দেড়ঘণ্টা পরেও চিকিৎসকশূন্য ছিল বহির্বিভাগ।
রোববার (৯ জুন) সকালে চিকিৎসা কেন্দ্রটিতে ঝটিকা সফরে গিয়ে এমন চিত্র দেখতে পান চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. আজিজুর রহমান সিদ্দিকী।
ডা. আজিজুর রহমান সিদ্দিকী বলেন, গিয়ে দেখি বহির্বিভাগে রোগী বসে আছেন, কিন্তু চিকিৎসক নেই। পরে খোঁজ নিয়ে জানলাম, চিকিৎসকরা মিটিং করছেন।
‘এরপর চিকিৎসকদের বললাম আপনারা সবাই মিটিং করছেন কেন? কয়েকজন তো সেবা দিতে পারতেন। মিটিং করছেন-সেটা রোগীরা বুঝবে নাকি? আমি আসার পর রোগীরা অভিযোগ দিলো, সাড়ে নয়টা পর্যন্ত বহির্বিভাগে চিকিৎসক নেই’ বলেন সিভিল সার্জন।
সিভিল সার্জন কার্যালয়ের তথ্য অনুযায়ী, সীতাকুণ্ড উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি ৫০ শয্যার। তবে সেখানে পর্যাপ্ত চিকিৎসক নেই। জোড়াতালিতে চলছে ওই চিকিৎসা কেন্দ্রের স্বাস্থ্যসেবা। স্থানীয় এক বাসিন্দা বলেন,বহির্বিভাগে প্রায় সময় চিকিৎসক থাকে না।
‘সেবা নিতে গেলে ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হয়। মাঝেমধ্যে চিকিৎসক পাওয়া গেলেও, শুধু ওষুধ লিখে দেন। হাসপাতাল থেকে রোগীদের সরকারি ওষুধ দেওয়া হয় না, নিজেদের কিনতে হয়।’
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে সীতাকুণ্ড উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আবদুল মজিদ ওসমানী বলেন, চিকিৎসকরা একটি প্রশিক্ষণে ছিলেন। এজন্য বহির্বিভাগে তখন চিকিৎসক ছিল না।
নিয়ম অনুযায়ী বিকল্প চিকিৎসক দিয়ে সার্বক্ষণিক সেবা চালুর রাখার বিষয়টি অবহিত করা হলে ডা. আবদুল মজিদ ওসমানী বিষয়টি এড়িয়ে যান। তিনি বলেন, রোগীদের বসার ব্যবস্থা ছিল। প্রশিক্ষণ শেষে চিকিৎসকরা সেবা দেওয়া শুরু করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*