অফিসে প্রথম দিন, চলছে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময়


স্টাফ রিপোর্টার::
টানা ৫দিন ছুটির পর অফিস-আদালত খোলার প্রথম দিন রোববারও (৯ জুন) ছিল ঈদের আমেজ। দূর-দূরান্তের অনেক কর্মকর্তা-কর্মচারী গ্রামের বাড়ি থেকে এখনও এসে পৌঁছাননি। অনেকে বাড়তি ছুটি নেওয়ায় অফিসগুলোতে উপস্থিতির হার ছিল কম।
যারা কর্মক্ষেত্রে যোগ দিয়েছেন তারা ব্যস্ত ছিলেন সহকর্মীদের সঙ্গে কোলাকুলি ও ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় নিয়ে। বাংলাদেশ ব্যাংক চট্টগ্রাম কার্যালয়, আদালত ভবন, চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ, কাস্টমস, শিপিং করপোরেশন, রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলীয় কার্যালয় (সিআরবি), চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ, জেলা প্রশাসন কার্যালয়, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনসহ প্রায় সব অফিসেই ছিল ঈদের আমেজ।
আদালত ভবনে বিচারকদের উপস্থিতি স্বাভাবিক হলেও আইনজীবীদের উপস্থিতি ছিল কম। রেলওয়ে কার্যালয়েও উপস্থিতি কম দেখা গেছে। তবে সব বিভাগ খোলা রাখা হয়েছে। রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলীয় কর্মকর্তারা কাজে যোগ দিয়েছেন।
বাংলাদেশ ব্যাংক চট্টগ্রাম কার্যালয়ের একজন কর্মকর্তা বলেন, ঈদের পর প্রথম খোলার দিন হিসেবে রোববার বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রায় ৮০ শতাংশ কর্মকর্তা-কর্মচারী কর্মস্থলে এসেছেন।


অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেড স্টীল মিল শাখার ব্যবস্থাপক অমল রুদ্র বলেন, আমাদের শাখায় প্রায় সবাই উপস্থিত হয়েছেন।
চট্টগ্রামের বাণিজ্যিক এলাকা খ্যাত আগ্রাবাদে সবগুলো ব্যাংক খুলেছে। তবে বেশকিছু বেসরকারি অফিস এখনো বন্ধ। ঈদের আগে ব্যাংকগুলো বিশেষ ব্যবস্থায় খোলা ছিল। তাই ব্যাংক খোলার প্রথম দিন গ্রাহকের খুব একটা ভিড় দেখা যায়নি।
চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের একজন কর্মকর্তা জানান, আমদানিকারকরা কনটেইনার সরবরাহ নেয়া শুরু করেছেন। শ্রমিকরাও ইয়ার্ডে কন্টেইনার হ্যান্ডেলিংয়ের কাজ করছেন।
এছাড়া নগর ও জেলায় ৬৯৭টি গার্মেন্টস কারখানার অধিকাংশই খুলেনি। তবে কয়েকটি গার্মেন্টে শ্রমিক-কর্মচারীরা ঈদের ছুটি শেষে কাজে যোগ দিয়েছে বলে জানিয়েছেন এক গার্মেন্ট কর্মকর্তা ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*