এনজিও কর্মী ধর্ষন মামলায় আটক

চন্দনাইশ প্রতিনিধি :: চন্দনাইশ উপজেলার দোহাজারী ফুলতলা এনজিও প্রত্যাশী কার্যালয়ের কর্মী সাবের আলম (২৫)কে গত ২৪ জুন ধর্ষন মামলায় আটক করেছে পুলিশ।
মামলা সুত্রে জানা যায়, দোহাজারী লালুটিয়া লাকির বর বাড়ির ১৫ বছরের শারিরীক প্রতিবন্ধি জব্দ নাম সাহিদা সুলতানাকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে প্রত্যাশী এনজিও কর্মী সাবের আলম গত ২৮ সেপ্টেম্বর’১৮ রাতে এবং গত ১৫ মে’১৯ রাতে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে একাধিকবার শারিরীক সম্পর্ক গড়ে তোলে। এ বিষয়ে পরিবারের লোকজন জানতে পেরে সাহিদা সুলতানাকে দোহাজারী স্বাস্থ্য কমপেক্সে নিয়ে গেলে কর্তৃব্যরত ডাক্তার পরীক্ষা নিরীক্ষার পর ৮ মাসের অন্তসত্বা বলে জানায়। এ বিষয়ে তার পরিবারের লোকজন স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের বলার পর গত ২৪ জুন দোহাজারী ফুলতলা এনজিও প্রত্যাশী কার্যালয়ের কর্মী সাবের আলম লালুটিয়া এলাকায় কিন্তির টাকা তুলতে গেলে তাকে আটক করে পুলিশে দেয়। এব্যাপারে ভিকটিম সাহিদা সুলতানা বাদি হয়ে সাবের আলমের বিরুদ্ধে ধর্ষন মামলা দায়ের করে। পুলিশ মামলার সুত্র ধরে সাবের আলমকে আটক দেখিয়ে গতকাল ২৫ জুন আদালতে প্রেরণ করেন। সাবের আলম কক্সবাজার জেলার চকরিয়ার হারবাংয়ের মোহাম্মদ বদিউল আলমের ছেলে বলে জানা যায়।
থানা অফিসার ইনচার্জ কেশব চক্রবর্ত্তী এ বিষয়ে মামলা দায়েরের সত্যতা স্বীকার করে বলেছেন আসামী গ্রেপ্তার করে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। আদালতের আদেশ নিয়ে ভিকটিমের মেডিকেল পরীক্ষা করা হবে বলে জানান।
এব্যাপারে আসামী সাবের আলম বলেন তিনি দীর্ঘ ১ বছর ধরে এ এলাকায় সুনামের সহিত এনজিও এর কার্যক্রম পরিচালনা করে যাচ্ছেন। তিনি ইতিমধ্যে ডিগ্রী পাশ করে পদোন্নতি প্রাপ্তি অপেক্ষমান রয়েছেন। কিন্তির টাকা উত্তোলন নিয়ে লালুটিয়া এলাকায় কয়েকজনের সাথে মনোমালিন্য হওয়ায় তাকে শক্রতামুলকভাবে একটি পক্ষ তাকে এ ঘটনায় ফাঁসিয়ে দিয়েছেন বলে দাবি করেন। তাছাড়া ভিকটিম একজন অপ্রাপ্ত বয়স্ক, শারিরীক প্রতিবন্ধি, নিরক্ষর এবং পিতৃহীন সৎ মায়ের সংসারে বড় হচ্ছে। তার সাথে এ ধরনের আচরণ করা সমিচিন নয় বলে দাবি করেন এবং তিনি এ ভিকটিমকে ছিনেননা বলেও জানান। তাছাড়া তার পরিবারের পক্ষ থেকে এব্যাপারে সত্যতা নিশ্চিতের জন্য আদালতের দারস্থ হয়ে প্রকৃত ঘটনা উৎঘাটনের লক্ষ্যে ডিএনএ টেষ্টের জন্য আবেদন করবেন বলে জানিয়েছেন সাবের আলমের মাতা কামরুন্নাহার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*