চন্দনাইশে সরকারি-বেসরকারিভাবে ত্রাণ বিতরণ অব্যাহত

মো. কমরুদ্দীন,চন্দনাইশ :: চন্দনাইশে বন্যাদুর্গত এলাকা পরিদর্শন শেষে বানবাসি মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেছেন, সংসদ সদস্য আলহজ্ব নজরুল ইসলাম চৌধুরী। গতকাল ১৫ জুলাই সকাল থেকে সন্ধ্য পর্যন্ত উপজেলার দোহাজারী চাগাচর, সাতবাড়িয়া, বরকল, বরমা, বৈলতলী, চন্দনাইশ পৌরসভাসহ বিভিন্ন এলাকায় ২ হাজার পরিবারে শুকনো খাবারের প্যাকেট বিতরণ করেন। এসব প্যাকেটে চাল, ডাল, চিড়া, চিনি, তেল, মোমবাতি, মুড়িসহ বিভিন্ন খাবার ৪ দিন ধরে বিতরণ করা হচ্ছে। সে সাথে সংসদ সদস্যের তত্ত্বাবধানে সিটি গার্ডেন কমিউনিটি সেন্টারে বন্যার্তদের জন্য প্রতিদিন খাবার তৈরি ও প্যাকেটজাত করে বন্যার্তদের মাঝে বিতরণ করা হচ্ছে। সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম চৌধুরী উপস্থিত থেকে সার্বক্ষনিক এ ত্রাণ তৎপরতায় অংশগ্রহণসহ মনিটরিং করছেন। তিনি বলেন, চন্দনাইশের ৮০ শতাংশ মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। সুতরাং চন্দনাইশকে বন্যাদূর্গত এলাকা ঘোষণা করে সরকারি ও বেসরকারিভাবে ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে ত্রাণ বিতরণে এগিয়ে আসার আহবান জানান। এ সময় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুল জব্বার চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান মাও. সোলাইমান ফারুকী, পৌর মেয়র মাহবুবুল আলম খোকা, আ.লীগ নেতা যথাক্রমে হেলাল উদ্দীন চৌধুরী, শেখ টিপু চৌধুরী, আবুল কাশেম বাবলু, আমজাদুল হক চৌধুরী দুলাল, সুব্রত বড়–য়া প্রমূখ।

এদিকে গতকাল ১৫ জুলাই দুপুর থেকে বিকাল পর্যন্ত দোহাজারী চাগাচর এলাকায় জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশনের উদ্যেগে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপি’র সভাপতি ডা. শাহদাত হোসেনের নেতৃত্বে ২ হাজার পরিবারের মধ্যে চাল, ডাল, মুড়ি, চিড়া, মোমবাতি, আলু, তেলসহ বিভিন্ন সামগ্রী দিয়ে প্যাকেটজাত করে বন্যর্তদের মাঝে বিতরণ করা হয়। ডা. শাহদাত বলেন, চন্দনাইশে ৮০ শতাংশ মানুষ পানিবন্দি হয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছে। তাদের সহায়তায় সরকারের পাশাপাশি সমাজের বিত্তবানদের সাহায্যে এগিয়ে আসার আহবান জানান। সে সাথে চন্দনাইশকে বন্যাদুর্গত এলাকা ঘোষণা করে সরকারিভাবে ত্রাণ তৎপরতা তড়িৎ গতিতে চালিয়ে নিয়ে যাওয়ার আহবানও জানিয়েছেন তিনি। আগামী ১৭ জুলাই চন্দনাইশ পৌরসভা বরকল-বরমাসহ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ এলাকায় জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে ত্রাণ বিতরণ করবেন বলে জানিয়েছেন। এসময় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন, এড. মো. সোহেল, বিএনপি নেতা কামাল উদ্দীন, যুবদল নেতা মোরশেদুল আলম, আবদুল মজিদ শাহ, আবদুল মান্নান, আবু বকর, জয়নাল আবেদিন প্রমূখ।

একইভাবে গতকাল সোমবার সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত উপজেলার বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ এলাকায় শুকনো খাবারের ১ হাজার ৫’শ প্যাকেট ত্রাণ বিতরণ করেন চন্দনাইশ সমিতি চট্টগ্রাম। উপজেলার বরকল, বরমা, সাতবাড়িয়া, বৈলতলী, চন্দনাইশ ও দোহাজারী পৌরসভা, কা ন নগর, হাশিমপুর, ধোপাছড়িসহ বন্যাদুর্গত এলাকায় ত্রাণ বিতরণের সময় উপস্থিত ছিলেন, সংগঠনের সভাপতি, রিহ্যাব নেতা আবদুল কৈয়ুম চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মাকছুদুর রহমান, ট্রাস্টি সেক্রেটারি, বাংলাদেশ ব্যাংকের একরাম হোসেন, জাহাঙ্গীর আলম, আবদুল মান্নান, আবদুল নবী খান, এড. নজরুল ইসলাম, মো, ইদ্রীস, মো. আরশাদ উল্লাহ, জাহেদুল আলম, আবদুর রহিম, আবদুল আলিম, মো. হানিফ, নিজাম উদ্দীন প্রমূখ। এছাড়া চন্দনাইশ পৌরসভায় প্যানেল মেয়র হেলাল উদ্দীন চৌধুরী, ব্যবসায়ী আবদুল হাকিম, মেম্বার জাহাঙ্গীর আলমসহ অনেক জনপ্রতিনিধি, ব্যবসায়ী ও বিত্তবানরা ত্রাণ বিতরণ করতে দেখা যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*