বঙ্গবন্ধু স্মৃতি সংসদ ইউ এ ই কেন্দ্রীয় কমিটির আয়োজনে বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রামান্যচিত্র প্রদর্শন ও আলোচনা সভা

এম এ তাহের ভুঁইয়া, ইউ এ ই প্রতিনিধি :: বঙ্গবন্ধু কোন একক দল বা ব্যক্তির নয় তিনি দেশ জাতি এবং বিশ্বের শান্তিকামী মানুষের নেতা।
বঙ্গবন্ধু স্মৃতি সংসদ ইউ এ ই কেন্দ্রীয় কমিটি কতৃক আয়োজিত আলোচনা সভার প্রধান অতিথি কনসাল জেনারেল উনার বক্তব্যে আরো বলেন আমরা বর্তমান মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যার নেতৃত্বে এগিয়ে যাচ্ছি সকল বাধা বিগ্ন ডিঙ্গিয়ে।বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠায় আমরা সকলে কাজ করবো আপোষহীন ভাবে নিজ নিজ অবস্হান হতে।আমাদের সরকার প্রবাসী বান্ধব সরকার।আমরা কোন ভাবে প্রবাসীদের হয়রাণী হোক বা করুক তা চাই না।আমরা সেবার মান বৃদ্ধি করেছি। যেখানে বিশ মিনিটে পাসপোর্ট সেবা পাচ্ছেন কনস্যুলেটে।কোন প্রকার ভোগান্তি নেই।উপস্হিত সকলের কাছে জানতে চাইলে সেবা নেওয়া অনেকে দাঁড়িয়ে বলেন পাঁচ মিনিটে সেবা নিশ্চিত হচ্ছে।তিনি বলেন রুপকল্প ২০৪১ বাস্তবায়ন করতে হলে সেবার মান যেমন বৃদ্ধি করতে হবে তেমনি আপনাদের ও সজাগ হতে হবে।কোন সিগন্যালে দাঁড়িয়ে সময় অপচয় চলবে না।ষড়যন্ত্রের কালো হাত ভেঙে দেওয়া হবে।বঙ্গবন্ধু আদর্শে খন্দকার মোসতাক মার্কা কোন বেঈমান ডুকে পড়লে দলের ও দেশের ক্ষতি হবে।
মৃত ব্যক্তির লাশ দেশে পাঠাতে চাঁদা তুলতে হবে না কনস্যুলেট বহন করবে খরচ।যে কোন অভিযোগ দ্রুত সূরাহ করা হবে শক্ত হাতে।
তিনি আরো বলেন দুবাই উত্তর আমিরাতে শারজাহ বাংলাদেশ সমিতি সহ সকল সমিতি গুলো প্রবাসীদের স্বার্থে কাজ করবে।শারজাহতে একটি স্কুল প্রতিষ্টা হবে শীঘ্রই।
রাস আল খাইমাহতে জাতির পিতার নামে বঙ্গবন্ধু সেন্টেনিয়াল স্কুলের নতুন ভবনের কাজ শীঘ্রই শুরু হবে।কোন প্রকার ষড়যন্ত্র আমাদেরকে দমাতে পারবে না।ইনশাআল্লাহ জাতির পিতার জন্ম শতবার্ষিকী উদযাপনের মধ্যদিয়ে স্কুলের কার্যক্রম শুরু হবে।
জমির লীজমানি হিসাবে যে সকল প্রবাসীরা অর্থ সহয়তা দিয়েছেন তাদের কে ধন্যবাদ জানান।
সবাইকে অবস্হানরত আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হতে আহব্বান জানান।
বক্তরা প্রধান অতিথির বক্তব্য এর প্রতি সমর্থন জানিয়ে বলেন সকল ষড়যন্ত্র নির্মূলে একযোগে বঙ্গবন্ধু সৈনিকরা কাজ করবে।

বঙ্গবন্ধু স্মৃতি সংসদ কেন্দ্রীয় কমিটি আমিরাতের আয়োজনে ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস ও ২১ আাগস্ট শহীদ স্মরণে আলোচনা সভা অনুষ্টিত হয় নাখিলস্হ গ্র্যান্ড হলে সংগঠনের সভাপতি এম এ মুছার সভাপতিত্বে সাধারণ সম্পাদক জয়নুল হক এর সাবলীল উপস্হাপনায়।এতে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্হিত ছিলেন দুবাই বাংলাদেশ কনস্যুলেট এর মান্যবর কনসাল জেনারেল মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন খান।প্রধান বক্তা হিসাবে উপস্হিত ছিলেন সাবেক সভাপতি সি এম আবদুল্লাহ, বিশেষ অতিথি মোহাম্মদ এনামুল হক, জসিম উদ্দীন মল্লিক,সাইফুল ইসলাম,জাপর উদ্দীন চৌধুরী,আবদুল হাকিম,প্রকৌশলী রেজাউল,মোহাম্মদ আকতার হোসেন,ইফতেখার কাজল।আলোচনায় অংশ গ্রহন করেন প্রকৌশলী মহিউদ্দিন বেলাল রনি,মাঈনো উদ্দীন ফারুক,জমির উদ্দীন, রায়হান উদ্দীন রাশেল,মোমিন মুন্সী,নুর হোসেন,মোহাম্মদ হাসিম,মনসুর আহম্মদ,সাইফুউদ্দীন সাইফুল, মোহাম্মদ মামুন,মোহাম্মদ দেলোয়ার,রোবেল হাসান,মোহাম্মদ আকতার,রফিকুল আমিন,সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।
মোহাম্মদ শাহ আলমের পবিত্র কোরআন তেলোয়াত ও শহীদ স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালনের এর মধ্যদিয়ে অনুষ্টিত আলোচনা সভা শোকাহত পরিবেশে শুরু হয়।আলোচনা সভার মধ্যখানে বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রমাণ্য চিত্র প্রদর্শন করা হয়।
উপস্হিত আঞ্চলিক শাখার সভাপতি সম্পাদক যথাক্রমে আল রামস,মেরিজ,সোমাল,কোসাইদাদ,খরাণ,রাক সিটি এবং দুবাই এর নেতৃবৃন্দদের অংশ গ্রহণে হল ভর্তি নেতা কর্মীরা শোক কে শক্তিতে পরিণত করার শপথে আলোচনা সভার সভাপতি এম এ মুছা সমাপ্তি ঘোষনা করেন।
উল্লেখ্য প্রতিবছর ১৫ আাগস্ট ও ২১ আাগস্ট শহীদের আত্মার মাগফিরাত কামনায় যথাসময়ে দোয়া মাহফিল ও পবিত্র কোরআন খতম আয়োজন করে আসছে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি সংসদ,এবার ও ব্যতিক্রম হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*