আনোয়ারায় খাবার নিয়ে বিয়ের অনুষ্ঠানে মারামারি, কনে ছাড়া ফিরে গেল বর

এস এম সালাউদ্দিন, আনোয়ারা :: আনোয়ারায় খাবার নিয়ে বরপক্ষের সাথে কনে পক্ষের কথাকাটাকাটির জের ধরে বিয়ের অনুষ্ঠানে উভয় পক্ষের মারামারিতে পন্ড হয়ে গেছে বিয়ে। এতে উভয় পক্ষের বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে। গতকাল শনিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে উপজেলার সরকার হাট আল আমিন কমিউনিটি সেন্টারে এ ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, শনিবার আনোয়ারা উপজেলার মহতর পাড়া গ্রামের রবিউল হোসেনের ছেলে রুবেলের সাথে বাঁশখালি উপজেলার বেলগাঁও গ্রামের আবদুল মোতালেবের মেয়ে শাবনুর আকতারের বিয়ের দিন ধার্য ছিল। বিয়েতে বরপক্ষের ২৫০ জন লোককে খাওয়ানোর কথা ছিল। দুপুরের আগে আসা বরপক্ষের লোকজনকে খাওয়ানো হয়। দুপুরের পরে আসা লোকজনকে বরের সাথে একত্রে খাওয়ানোর জন্য খাবার দেয়া হয়নি। পরে সাড়ে তিনটার দিকে বর কমিউনিটি সেন্টারে উপস্থিত হলে বর এবং বরের মায়ের জন্য খাবার টেবিল সাজানো হয়। তখন দুপুরের পরে আসা লোকজন এবং বরের সাথে আসা লোকজন খাবার টেবিলে বসে পড়ে। এদৃশ্য দেখে কনে পক্ষের লোকজন বলতে শুরু করে ১৯ টেবিলে ২২৮ জন বরপক্ষের লোকজন খাওয়ানো হয়েছে। ওদের বাকী আছে ২৮ জন কিন্তু নির্ধারিণ সংখ্যার চেয়ে বরপক্ষের লোকজন অনেক বেশি হয়ে গেছে। সুতরা বরের সাথে ২২ জনকে খাবার দিয়ে বাকীদের খাবার টেবিল থেকে তুলে দেন। এ কথা বলার পর দুপক্ষের মধ্যে লেগে যায় তুমুল বাকবিতন্ডা। তখন একপর্যায়ে বরের ছোট ভাই সোহেল লোকজন নিয়ে কনে পক্ষের এক লোককে মারধর শুরু করলে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়। এতে উভয়পক্ষের বেশ কয়েকজন আহত হয়। পরে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আনোয়ারা থানা পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। মারামারির ঘটনার পর কনেপক্ষ বরের হাতে কন্যাকে আর তুলে দেয়নি।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে আনোয়ারা থানার এসআই শামসুজ্জামান বলেন, এ ঘটনা নিয়ে কোন পক্ষ থানায় লিখিত অভিযোগ করেনি। ১৮ তারিখ উভয় পক্ষ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে বসে ঘটনার মীমাংসা করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*